গণপিটুনিতে রেনু হত্যা: ১৩ আসামির বিচার শুরু

ছেলেধরা সন্দেহে রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় তাসলিমা বেগম রেনুকে পিটিয়ে হত্যার মামলায় ১৩ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দিয়েছে আদালত।

বৃহস্পতিবার ঢাকার ষষ্ঠ অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ ফাতিমা ইমরোজ ক্ষণিকা আসামিদের বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য ১ জুলাই দিন রাখেন। এর মধ্যে দিয়ে চাঞ্চল্যকর ওই হত্যা মামলাটির বিচার শুরু হলো।

রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি আব্দুল্লাহ আবু এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, রাষ্ট্রপক্ষ থেকে মামলাটিতে অভিযোগ গঠনের প্রস্তাব করা হয়। অন্যদিকে আসামিদের পক্ষে তাদের আইনজীবী অব্যাহতি চেয়ে শুনানি করেন। শুনানি শেষে বিচারক অব্যাহতির আবেদন নাকচ করে অভিযোগ গঠনের আদেশ দেন।

মামলার আসামিরা হলেন- ইব্রাহিম ওরফে হৃদয় মোল্লা, রিয়া বেগম ময়না, আবুল কালাম আজাদ, কামাল হোসেন, শাহিন, বাচ্চু মিয়া, বাপ্পি ওরফে শহিদুল ইসলাম, রাজু ওরফে রুম্মান হোসেন, মহিউদ্দিন, মুরাদ মিয়া, সোহেল রানা, আসাদুল ইসলাম এবং বেল্লাল মোল্লা।

২০১৯ সালের ২০ জুলাই সকালে রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় মেয়েকে ভর্তি করাবেন বলে স্থানীয় একটি স্কুলে যান তাসলিমা বেগম রেনু। এসময় তাকে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে হত্যা করা হয়।

ওই রাতেই রেনুর বোনের ছেলে নাসির উদ্দিন বাদী হয়ে বাড্ডা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় অজ্ঞাতনামা ৫শ জনকে আসামি করা হয়। পরে সিসিটিভির ফুটেজ দেখে গণপিটুনিতে জড়িত কয়েকজনকে শনাক্তের পর গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.