মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা, স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত

দেশে কয়েক সপ্তাহ ধরে করোনা সংক্রমণের বেড়েই চলেছে। এরমধ্যেই শুক্রবার (২ এপ্রিল) অনুষ্ঠিত হয়ে গেল মেডিকেল কলেজের ভর্তি পরীক্ষা। সকাল ১০টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত দেশের ৫৫ কেন্দ্রে পরীক্ষা হয়। দেশব্যাপী ১০০ নম্বরের নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নের পরীক্ষায় বসেছিলেন ১ লাখ ২২ হাজার ৮৭৪ জন পরীক্ষার্থী। প্রতিটি পরীক্ষার হলে স্বাস্থ্যবিধি মানতে করাকরি থাকলেও উল্টো চিত্র ছিল পরীক্ষা কেন্দ্রের বাইরে।

পরীক্ষার আগে ও পরে স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা করে পরীক্ষার্থী এবং তাদের স্বজনরা ভিড় করেন হলের গেটে। এতে পরীক্ষার কেন্দ্রগুলোর সামনে দেখা যায় উপচে পড়া ভিড়। এমন কি প্রতিটি কেন্দ্রের আশপাশের এলাকায়ও দেখা যায় একই চিত্র।

রাজধানীর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা কলেজ, তেজগাঁও সরকারি কলেজ, ইডেন মহিলা কলেজ, টিচার্স ট্রেনিং কলেজ, গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ কেন্দ্রের সামনে নির্দিষ্ট সময়ের আগে শিক্ষার্থীরা উপস্থিত হন। নির্দেশনা অনুযায়ী পরীক্ষা শুরু হওয়ার দুই ঘণ্টা পূর্বে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষাকেন্দ্রে প্রবেশ করেন। তবে পরীক্ষার পুরোটা সময় ধরে এসব কেন্দ্রের বাইরের চিত্র পুরো উল্টো ছিল। পরীক্ষার্থীদের সঙ্গে আসা স্বজনরা যে যার মতো স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা করে জটলা করে দাঁড়িয়ে বা বসে ছিলেন। একই চিত্র দেখা যায় পরীক্ষার পরেও। একই জায়গায় শতশত শিক্ষার্থী ও তাদের স্বজনরা ভিড় করেন। অনেকে স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা করে বাসে উঠেছেন।

রাজধানীর উদয়ন উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের সামনে অপেক্ষারত অভিভাবক নুরুল আজম বলেন, এখানে নিরাপত্তাকর্মী আছেন মাত্র পাঁচ থেকে ছয় জন। তাদের পক্ষে এত ভিড় সামলানো সম্ভব না। তা ছাড়া, অভিভাবকদের মধ্যেও সচেতনতার অভাব আছে। ঢোকার সময় গেটের সামনে অভিভাবকরা জটলা বেঁধে দাঁড়িয়েছিলেন। বের হওয়ার সময়ও তাই। শিক্ষার্থীদের যে লাইন তার পাশেই ধাক্কাধাক্কি করছেন অভিভাবকরা।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.