সব রেকর্ড ভাঙতে চান সাকিব

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) ক্রিকেটের ১৪তম আসরে অংশ নিতে এখন ভারতের মুম্বাইয়ে সাকিব আল হাসান। আগামী ৯ এপ্রিল পর্দা উঠবে এবারের আইপিএলের। আর সাকিবের কোয়ারেন্টাইন মুক্তি মিলবে আজ। গত ২৭ মার্চ ভারত গিয়ে সাতদিনের কোয়ারেন্টাইনে বন্দী সাকিব।

তবে কোয়ারেন্টাইনের সময়টা উপভোগ্য করতে বেশ কিছু লাইভ ইন্টারভিউ ও আড্ডায় অংশ নিয়েছেন সাকিব। যার সবশেষটি করা হয়েছে তার দল কলকাতা নাইট রাইডার্সের (কেকেআর) পক্ষ থেকে। এবারের আইপিএলের নিলাম থেকে ৩ কোটি ২০ লাখ রুপির বিনিময়ে সাকিবকে কিনেছে কলকাতা।

দুই মৌসুম সানরাইজার্স হায়দরাবাদের হয়ে খেলার পর আবার কলকাতার বেগুনি জার্সিতে দেখা যাবে সাকিবকে। আর এ মৌসুমে আইপিএলে নিজের আগের সব রেকর্ড ভাঙার ইচ্ছা বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের এই বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের। কেকেআরের অনলাইন আড্ডায় এমনটাই জানিয়েছেন তিনি।

শুক্রবার বিকেলে করা এ লাইভে সাকিবের কাছে প্রশ্ন রাখা হয়েছিল, আইপিএলে এবার তিনি ২৫ উইকেট নিতে চান নাকি ৫০০ রান করতে চান? উত্তরে সাকিব বেছে নিয়েছেন ২৫ উইকেটকে। তবে দুইটিই একসঙ্গে করতে পারলে সেটি দলের জন্য এবং নিজের জন্য আরো ভালো হবে বলেছেন তিনি।

সাকিবের বিশ্বাস ২৫ উইকেট নিতে পারলে চ্যাম্পিয়ন হবে কেকেআর। তার ভাষ্য, ‘২৫টির বেশি উইকেট (নিতে চাই)। আমি মনে করি ৫০০ রান অবশ্যই বড় অর্জন। তবে এটা নিশ্চিত করে না যে, আপনি ট্রফি জিতবেন। আমি যদি ২৫টি উইকেট নেই তাহলে আমরা নিশ্চিত ট্রফি জিতব। আমি যদি দুটোই করতে পারি কেকেআর এবং আমার জন্য ভালো হবে।’

উল্লেখ্য, আইপিএলের এক আসরে এখনও পর্যন্ত আড়াইশ রান বা ১৫ উইকেট নেয়া হয়নি সাকিবের। ২০১৮ সালের আসরে সর্বোচ্চ ১৪ উইকেট এবং একই বছর ব্যাট হাতে সর্বোচ্চ ২৩৯ রান করেছিলেন তিনি। ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সের বিচারে এটিই সাকিবের সেরা আসর।

এছাড়া দশের বেশি উইকেট তিনি নিয়েছেন ২০১১, ২০১২ ও ২০১৪ সালের আসরে। আর ব্যাট হাতে দুইশর বেশি রান করেছেন ২০১৪ সালের আসরে। সবমিলিয়ে আইপিএলে খেলা ৬৩ ম্যাচে সাকিবের সংগ্রহ ২ ফিফটিতে ৭৪৬ রান ও ৫৯ উইকেট। কলকাতার হয়ে ২০১২ ও ২০১৪ সালের আসরে শিরোপা জিতেছিলেন তিনি।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.