সুনামগঞ্জে নোহা গাড়িসহ এক শিশু অপহরন : ৬ ঘন্টা পর উদ্ধার

কামাল হোসেন, সুনামগঞ্জ

সুনামগঞ্জ জেলার গোবিন্দগঞ্জ বাজার থাক মেট্রো-চ – ৫৩-১২১৫ নাম্বারে একটি নোহা গাড়িসহ হালিমা নামের ৫ বছরের এক শিশু কন্যাকে অপহরণ করে নিয়ে যাওয়ার প্রায় ৬ ঘন্টা পর সিলেট থেকে উদ্ধার করেছে সুনামগঞ্জ পুলিশের একটা দল। এ ঘটনা ঘটেছে আজ ২৬ এপ্রিল সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার সময় ছাতক উপজেলার গোবিন্দগঞ্জ বাজারে। এ ঘটনায় রুকন আহমদ (২৮) নামের এক অপহরণ কারিকে আটক করে পুলিশ। সে ছাতক উপজেলার গৌরীপুর গ্রামের কুটি মিয়া ছেলে। এবং অপহত শিশু হালিমা একই উপজেলার গোবিন্দগঞ্জ শহিদপুর এলাকার মিজানুর রহমানের মেয়ে।

পুলিশ ও হালিমার পরিবার সূত্রে জানাযায়, সোমবার দুপুরে শিশু ঊর্মিলার বাবা মিজানুর বলেন, প্রয়োজনীয় কিছু জিনিস কিনতে স্ত্রী ও শিশুকন্যাকে নিয়ে নিজেই গাড়ি চালিয়ে গোবিন্দগঞ্জ বাজারে যান। মেয়ে ঘুমিয়ে পড়ায় তাকে গাড়িতে রেখেই পাশের একটি মিষ্টির দোকানে যান স্বামী-স্ত্রী। ফিরে এসে দেখেন গাড়িটি নেই। মেয়েকেও কোথাও খুঁজে পাওয়া যায়নি।

এ খবর ছড়িয়ে পড়লে সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপারের মিজানুর রহমান বিপিএম এর নির্দেশে ছাতক থানার অফিসার ইনচার্জ নাজিম উদ্দিনের নেতৃত্বে তড়িৎ গতির এ অপারেশন চালায় দক্ষিণ সুরমা ও ছাতক থানা পুলিশ। পুলিশে অভিযানে বিকাল ৩ টার দিকে প্রথমে সিলেটের কদমতলী এলাকায় গাড়ি ফেলে দুষ্কৃতিকারীরা শিশু হালিমাকে নিয়ে পালিয়ে গেলে পরে বিকাল সাড়ে ৪ টার দিকে ওই শিশুকেও উদ্ধার করা হয়। এবং এ ঘটনায় রুকন আহমদ নামের এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ।

ইতোমধ্যে তাদের ছাতক থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপারের মিজানুর রহমান বিপিএম এর সত্যতা নিশ্চিত করেন।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.