নোয়াখালীতে গৃহবধূর আত্মহত্যা, স্বামীকে গণপিটনি পুলিশে সোপর্দ করল এলাকাবাসী

নোয়াখালী প্রতিনিধি

৭৭

নোয়াখালীর সদর উপজেলায় পারিবারিক কলহের জেরে ফারহানা আক্তার প্রকাশ প্রিয়াংকা (২৬) নামের এক গৃহবধূ আত্মহত্যার ঘটনায় ঘটনায় তার স্বজনেরা তার স্বামী আক্তার উদ্দিন শাহীন (৩০) আটক করে গণপিটনি দিয়ে পুলিশে সোপার্দ করেছে।

নিহত ফারহানা আক্তার প্রিয়াংকা উপজেলার নোয়াখালী ইউনিয়নের পশ্চিম চর উরিয়া গ্রামের সালা উদ্দিন পরানের মেয়ে। এবং স্বামী আক্তার উদ্দিন শাহীনের বাড়ি হাতিয়া উপজেলার সোনাদিয়া গ্রামে।

সে ওই গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে শাহীন শ্বশুর বাড়ির পাশে একটি ঘরে স্ত্রীকে নিয়ে বসবাস করত।
স্থানীয়রা জানায়, প্রিয়াংকার স্বামী আক্তার উদ্দিন শাহীন শ্বশুর বাড়ির পাশে একটি ঘরে স্ত্রীকে নিয়ে বসবাস করত।

সে হাতিয়া উপজেলার সোনাদিয়া গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে। তার স্ত্রী আত্মহত্যা করলে তার শ্বশুর বাড়ির লোকজন অভিযোগ তুলে তাকে তার স্বামী হত্যা করে মরদেহ ঝুলিয়ে রাখে।

এই অভিযোগে নিহত গৃহবধূর পরিবারের সদস্যরা শাহীনকে বেধড়ক মারধর। পর পুলিশ খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।

একই সাথে নিহতের স্বামীকে উদ্ধার করে পুলিশ পাহারায় নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দিচ্ছে।
সুধারাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ সাহেদ উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নিহতের স্বামী পুলিশ

পাহারায় নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। নিহতের পরিবার এ ঘটনায় লিখিত এজহার দাখিল করলে। বিষয়টি খতিয়ে দেখে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট পেলে এ বিষয়ে আরও বিস্তারিত জানা যাবে।

 

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.