চাটখিলে ভাতিজাকে হত্যায় চাচার মৃত্যুদন্ড

নোয়াখালী প্রতিনিধি

১৪০

মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার দশঘরিয়া গ্রামের ভাতিজা পূর্ণ চন্দ্র দাস ওরফে ডেঙ্গুকে কুপিয়ে হত্যার দায়ে তার চাচাকে বিধান চন্দ্র দাস ওরফে সাইফুল ইসলামকে মৃত্যুদন্ড এবং ৫হাজার টাকা অর্থদন্ডাদেশ দিয়েছে নোয়াখালী জেলা ও দায়রা জজ সালেহ উদ্দিন আহমদ।

বুধবার (১০ নভেম্বর) দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ সালেহ উদ্দিন আহমদ আসামির উপস্থিতিতে ওই রায় ঘোষণা করেন।

-িত বিধান চন্দ্র দাস ওরফে সাইফুল ইসলাম নওমুসলিম চাটখিল উপজেলার মধ্য দশঘরিয়া গ্রামের দাস বাড়ির মৃত নেপাল চন্দ্র দাসের ছেলে।

আদালত সূত্রে জানা যায়, বাড়ির সীমানা নিয়ে বিরোধের জের ধরে ২০১৭ সালের ১০ জানুয়ারি দুপুর পৌনে ১২টার দিকে আসামি নও মুসলিম বিধান চন্দ্র দাস ওরফে সাইফুল ইসলাম তার ভাতিজা পূর্ণ চন্দ্র দাস ওরফে ডেঙ্গুকে চাটখিল

উপজেলার দশঘরিয়া বাজারে মাছ বিক্রি কালে হঠাৎ এসে পিছন দিক থেকে চুলের মুঠি ধরে গলায় ছুরিকাঘাত করে গলা কেটে দেয়। এরপর বুকে পিঠে পরপর চুরিকাঘাত করলে সে ঘটনাস্থলেই মারা যায়।

এ সময় অন্যান্য মাছ বিক্রেতাসহ বাজারের লোকজন আসামি বিধান চন্দ্র ওরফে সাইফুল ইসলামকে ধরে পুলিশে সোপর্দ করে। পরে এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী পলি চন্দ্র দাস বাদী হয়ে চাটখিল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

সাক্ষ্য-শুনানি শেষে মামলার প্রায় সাড়ে চার বছর পর আজ আসামির উপস্থিতিতে এ আদেশ দেন আদালতের বিচারক।
জজ আদালতের পিপি গুলজার আহমেদ জুয়েল জানান, আসামি বিধান চন্দ্র দাস ওরফে সাইফুল ইসলাম আদালতে ভাতিজা পূর্ণ চন্দ্র দাসকে হত্যার দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দেন।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.