হাতিয়াতে তুচ্ছ ঘটনার জের গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যা, গ্রেফতার-১

নোয়াখালী প্রতিনিধি

৩৯

মোঃ জাহাঙ্গীর আলম,নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ায় শেফালী বেগম (২৮) নামের এক গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। নিহত শেফালী বেগম উপজেলার চানন্দী ইউনিয়নের ধানসিঁড়ি আশ্রয়ন প্রকল্পের মোঃ ইউসুফের স্ত্রী।

বুধবার (১০ নভেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার চানন্দী ইউনিয়ন থেকে হত্যাকারী আবুল কালাম (৫০)কে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত আবুল কালাম উপজেলার চানন্দী ইউনিয়নের ধানসিঁড়ি আশ্রয়ন প্রকল্পের মৃত নবাব হোসেনের ছেলে।

হাতিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম এসব তথ্য নিশ্চিত করে জানান, গত ৯ নভেম্বর সকাল ৭টার দিকে উপজেলার চানন্দী ইউনিয়নের ধানসিঁড়ি আশ্রয়ন প্রকল্পের শেফালী বেগমের (২৮) সাথে একই

আশ্রয়ন কেন্দ্রের মোঃ আবুল কালামের (৫০) সাথে গাছ কাটা ও টয়লেট ব্যবহার নিয়ে কথাকাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে দুই পক্ষের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটে।

এ সময় আবুল কালাম উত্তোজিত হয়ে দা দিয়া শেফালী বেগমকে পেটে ও বাম হাতে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। এ সময় স্থানীয়রা শেফালী বেগমকে গুরুত্বর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে নোয়াখালী প্রাইম হাসপাতালে নিয়ে গেলে

কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করে। সেখান থেকে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার পথে মঙ্গলবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে শেফালী বেগম মারা যায়।

ওসি আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ঘটনার পর হত্যাকারী আবুল কালাম গা ঢাকা দেয়। পরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। পরে আসামির স্বীকারোক্তি মতে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত দা জব্দ করা হয়। এ

ঘটনায় মামলা দায়েরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। আগামিকাল বৃহস্পতিবার সকালে গ্রেফতারকৃত আসামিকে ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে নোয়াখালী চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হবে।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.