সেনবাগে রাতের খাবারের সাথে বিষ মিশিয়ে সাবেক স্বামীর পরিবারের সদস্যদের হত্যার চেষ্টা হাতেনাতে ধরা পড়লো সাবেক স্ত্রী তানিয়া সুলতানা প্রকাশ সুপ্তা

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

৬৪

মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার ৬নং কাবিলপুর ইউনিয়নের মইজদীপুর গ্রামের খাদ্যে বিষ প্রয়োগ করে সাবেক স্বামীর পরিবার হত্যার চেষ্টার ঘটনায় সেনবাগ থানা পুলিশ

তানিয়া সুলতানা সুপ্তা (২৫) নামের পরকীয়ার কারনে তালাক প্রাপ্ত নারীকে গ্রেফতার করেছে। ওই

জঘন্যতম ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার (২২ডিসেম্বর) উপজেলার মইজদীপুর গ্রামের মুন্সী বাড়ীতে।

পুলিশ ঘটনার সঙ্গে জড়িত তানিয়া সুলতানা প্রকাশ সুপ্তাকে কারাগারে পাঠিয়েছে। এবং বিষ মিশানো খাদ্য রাসায়নিক পরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠিয়েছে বলে জানান,মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই সবুজ চন্দ্র পাল।

পুলিশ ও স্থানীয় এলাকাবাসী জানায়, সেনবাগ উপজেলার ৬নং কাবিলপুর ইউনিয়নের মইজদীপুর গ্রামের মুন্সি বাড়ির আবুল কালাম মিয়ার ছেলে ওমান প্রবাসী আবুল খায়ের প্রকাশ শিপন (২৮)

সঙ্গে একই উপজেলার কাদরা ইউপির হিজলী গ্রামের তানিয়া সুলতানা প্রকাশ সুপ্তার সঙ্গে বিবাহ হয়। বিবাহের কিছুদির পর শিপন জীবিকার তাগিদে আবারো প্রবাসে ওমানে পাড়ি জমান।

এরপর প্রবাসী শিপনের স্ত্রী সুপ্তা স্বামী বাড়ির রাজু (২৪) নামের এক যুবকের সঙ্গে পরকিয়ায় জড়িয়ে পড়ে এবং অন্তঃসত্তা হয়ে যায়।

এরপর প্রবাস থেকে শিপন নভেম্বরে দেশে এসে স্ত্রী অন্তঃসত্তা হওযার বিষয়টি টের করতে পেরে গ্রাম্য শালিসের মাধ্যমে সুপ্তাকে তালাক দিয়ে দেয়।

এরপর গ্রামবাসী পরকীয়ার যুবক রাজুর সঙ্গে সুপ্তি বিয়ে দিয়ে দেয়। বিয়ের পর থেকে রাজু ও সুপ্তা সেনবাগ রাস্তার মাথা এলাকায় স্বামী-স্ত্রী হিসাবে বসবাস করে আসেছিলো।

বুধবার (২২ ডিসেম্বর) রাত ৭টার দিকে ক্ষিপ্ত তালাক প্রাপ্ত তানিয়া সুলতানা সুপ্তা গোপনে প্রথম স্বামীর ঘরে ডুকে তাদের রাতের খাওয়ারের জন্য রান্না করা তরকারীতে কীটনাশক মিশিয়ে দিয়ে,

চুপে চুপে ঘরের খাটের নিচে লুকিয়ে থাকে। সাবেক শ্বশুড় আবুল কালাম মিয়া (৭০) যখন রাতে খাওয়া খেতে গিয়ে বিষের দূর্গন্ধ পেয়ে চিৎকার শুরু করলে ঘরের লোকজন ও প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে খাবারে বিষের সন্ধান পান।

এরপর চারিদিকে খোঁজাখুজির পর ঘরের ভিতর খাটের নিচে লুকানো থাকা তানিয়া সুলতানা সুপ্তাকে হাতেনাতে আটক করে পুলিশকে খবর দেয়।

খবর পেয়ে সেনবাগ থানার এস.আই সবুজ পালের নেতৃত্বে সঙ্গীয় মহিলা পুলিশ সদস্য দ্রুত ঘটনার স্থলে পৌছে অভিযুক্ত তানিয়া সুলতানা সুপ্তাকে আটক করে কীটনাশক মিশ্রিত খাদ্যসহ থানায় নিয়ে আসেন।

এ ঘটনায় সাবেক স্বামী আবুল খায়ের শিপন বাদি হয়ে তানিয়া সুলতানা প্রকাশ সুপ্তিকে আসামী করে সেনবাগ থানায় একটি হত্যার চেষ্টার মামলা দায়ের করেছে।

এ ব্যাপারে সেনবাগ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অভিযুক্তকে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। এবং বিষ মিশানো খাদ্যদ্রব্য রাসায়নিক পরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠানো হয়েছে।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.