বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে আবারো শ্রমিকদের আন্দোলনের প্রস্তুতি

ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:

৮০

আল হেলাল চৌধুরী, দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে উন্নয়ন কাজের শ্রমিকরা, উৎপাদন কাজে নিয়োগের জন্য দীর্ঘ পাঁচ বছর থেকে আন্দোলন করে আসলেও এখনো হয়নি

তাদের চাকুরি। অনতিবিলম্বে নিয়োগ না দেয়া হলে আবারো আন্দোলনের হুমকি দিয়েছেন আন্দোলনকারী শ্রমিকরা।

জানা গেছে বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে শ্রমিকদের শূন্যপদে আন্দোলনকারী শ্রমিকদের বাদ দিয়ে বাহির থেকে শ্রমিক নিয়োগ দেয়ার প্রস্তুতি নেয়ায়,ক্ষোভে ফুঁসে উঠেছে আন্দোলনকারী

শ্রমিকরা। আন্দোলনকারী শ্রমিকরা বলছেন তারা গত ৬ বছর পূর্বে উন্নয়ন কাজ শেষ হওয়ায় তারা চাকুরি হারায়। এই কারনে উৎপাদন কাজে নিয়োগের জন্য গত ২০১৭ সাল থেকে আন্দোলন করে

আসছেন। তাদেরকে বাদ দিয়ে বাহির থেকে শ্রমিক নিয়োগ দেয়া হলে তারা বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তুলবেন।শ্রমিকরা জানায় বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের তৃতীয় ইউনিট নির্মাণের সময় তারা

উন্নয়ন কাজে চাকুরি পান, সেই সময় তাপ বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল, উন্নয়ন কাজ শেষ হলে তাদেরকে উৎপাদন কাজে নিয়োগ দিবে। কিন্তু ২০১৭ সালে উন্নয়ন কাজ শেষ হলে তাপ

বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ তাদেরকে উৎপাদন কাজে নিয়োগ না দিয়ে, বাহির থেকে শ্রমিক নিয়ে এসে উৎপাদন কাজে নিয়োগ দেয়া শুরু করে।

এরপর থেকে তারা উৎপাদন কাজে নিয়োগের জন্য আন্দোলন শুরু করে। ২০২০ সালে অতি মহামারী করোনা দুর্যোগ শুরু হলে নিয়োগ প্রক্রিয়া বন্ধ হয়ে যায়, সম্প্রতি করোনা প্রাদুর্ভাব শেষ

হওয়ায় আবারো নিয়োগ দেয়ার জন্য কর্তৃপক্ষের নিকট দাবী জানিয়েছেন আন্দোলনকারী শ্রমিকরা। বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের শ্রমিক অধিকার আন্দোলন কমিটির সাধারণ সম্পাদক

আবু সাইদ বলেন চাকুরি হারানোর পর থেকে আন্দোলনকারী শ্রমিকরা পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জিবন যাপন করছে, এখন যদি বাহির থেকে শ্রমিক নিয়োগ দেয়া হয়, তা হলে বৃহত্তর

আন্দোলন গড়ে তোলা ছাড়া আর কোন উপায় থাকবেনা। এতে আইনশৃংখলার অবনতি হলে এর দায়-দায়িত্ব তাপ বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষকে নিতে হবে।

তবে বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রধান প্রকৌশলী ফয়েজ উদ্দিন বলেন, এখন পর্যন্ত শ্রমিক নিয়োগের কোন সিদ্ধান্ত হয়নি, সিদ্ধান্ত হলে স্থানীয় শ্রমিকদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.