কুড়িগ্রামে ধর্ষণের পর মা-মেয়েকে গ্রামছাড়া, সংবাদ প্রকাশের পর থানায় মামলা

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি

৮৮

কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার বন্দবেড় ইউনিয়নের বাইটকামারী গ্রামের আবু তাহেরের ছেলে আব্দুল বাছেদ (৩০) নামের এক কাপড় ব্যবসায়ী পরকিয়ার ফাঁদে ফেলে মোবাইলে অশ্লীল ছবি ধারণ করে ইন্টারনেটে ছাড়ার হুমকি দিয়ে এক গৃহবধুকে দীর্ঘদিন যাবৎ ধর্ষণ করে আসছেন।
ধর্ষক প্রভাবশালি হওয়ায় মিথ্যা অপবাদ দিয়ে মা-মেয়েকে গ্রামছাড়া করার ঘটনায় বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর নড়েচড়ে বসে পুলিশ প্রশাসন।

গতকাল শুক্রবার (৯ এপ্রিল) রাতে এঘটনায় নির্যাতিতা ওই গৃহবধু বাদি হয়ে রৌমারী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছেন।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে, অপহরণ, ধর্ষণ, অন্তরঙ্গ মুহূর্তের আপত্তিকর ছবি মোবাইলে ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশের ভয় দেখিয়ে অর্থ হাতিয়ে নেয়। সেই সাথে মোবাইলে ধারণকৃত আপত্তিকর ছবিগুলো গ্রামবাসীদের দেখিয়ে তাদের উত্তেজিত করে সালিশ বৈঠকের ব্যবস্থা করে একঘরে করার হুমকি দিয়ে বাড়িঘর ভেঙ্গে ওই গৃহবধুসহ তার মাকে গ্রামছাড়া করা হয়।

এই পরিস্থিতিতে বাড়ি ছাড়া হয়ে গত ৩ সপ্তাহ ধরে ওই গৃহবধূ, তার মা ও সাড়ে ৪ বছর বয়সী সন্তানকে সাথে নিয়ে বাগুয়ারচর গ্রামে খালার বাড়িতে আশ্রয় নিয়ে আছেন। এ অবস্থায় ওই গৃহবধূ বাদি হয়ে শুক্রবার রাতে থানায় আব্দুল বাছেদকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছেন (মামলা নম্বর-৬, তারিখ-০৯/০৪/২০২১)।

এব্যাপারে রৌমারী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোন্তাছের বিল্লাহ বলেন, গৃহবধূর অভিযোগ পাওয়ার পর তা মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হয়েছে। তদন্ত শুরু করা হয়েছে। সেইসাথে মামলার আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। এছাড়া ভিকটিমকে আজ শনিবার ডাক্তারী তদন্তর জন্য জেলা সদরের জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.