সেনবাগের হতদরিদ্র কৃষক রকি উল্লাহ এখন লাখপতি

শায়েস্তানগরী,নোয়াখালী প্রতিনিধি

৫২

মোঃ জাহাঙ্গীর আলম,দরিদ্র কৃষক রকি উল্যা গতকালও তিন বেলা খাবার জোগারের চিন্তায় দিন কাটাতো আজ সে লাখপতি।

নিজের কাছে একলাখ টাকা থাকবে এটা সে কখনো স্বপ্নেও কল্পনা না করলেও তার হয়ে এই স্বপ্ন দেখেছিলেন নোয়াখালীর সেনবাগের মানবিক ব্যক্তিত্ব,টপস্টার গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, সৈয়দ

হারুন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান লায়ন সৈয়দ মোঃ হারুনের একমাত্র ছেলে এ লেভেলের শিক্ষার্থী সৈয়দ রাহাত হারুন।

সেনবাগের অজুনতলা ইউনিয়ন থেকে হতদরিদ্রতা দুর করার লক্ষে উদ্যোগ গ্রহন করে সেনবাগের সৈয়দ হারুন ফাউন্ডেশন।

ওই ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ঘোষণা করেন তার প্রতিটি অনুষ্ঠান থেকে অত্র ইউনিয়নের একজনকে লাখপতি করা হবে যাতে কেউ ভিক্ষা ভিত্তি না করে এবং অন্যের নিকট সাহায্যের হাত বাড়াতে না হয়।

যেমন ঘোষনা তেমন কাজ, ওই ঘোষনার পরাপরই ফাউন্ডেশনের কর্মীরা ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ড থেকে হতদরিদ্রদের নাম সংগ্রহ করে একটি তালিকা তৈয়ার করে তাদের সাবলম্ভি করার জন্য।

এরপর গতকাল শনিবার (১৬ এপ্রিল)রাতে তাদের স্বপ্নের বাস্তবায়ন করার লক্ষে সংগ্রহ করা হতদরিদ্র লোকের নাম গুলো লটারির করা হয়।

ওই লটারীর মাধ্যমে লাখপতি নির্বাচিত হন সেনবাগের দক্ষিন মানিকপুর গ্রামের হতদরিদ্র কৃষক রকি উল্যা। লটারীর মাধ্যমে নির্বাচিত হওয়ার পরপরই ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান লয়ন সৈয়দ হারুন রকি উল্লাহ হাতে ১ লক্ষ টাকা তুলে দেন।

সৈয়দ হারুন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান লায়ন সৈয়দ হারুন জানান ,যিনি লটারির মাধ্যমে লাখপতি হয়েছেন তাকে আমাদের ফাউন্ডেশনের ৩জন সক্রিয় কর্মীর সরাসরি তত্ত্বাবধানে এই অর্থ কোন

লাভজনক প্রকল্পে বিনিযোগ করে তাদের জন্য স্থায়ী একটি আয়ের উৎস সৃষ্টি করা হবে।
এক লাখ টাকা পেয়ে দরিদ্র কৃষক রকি উল্যা খুবই আবেগাপ্লুত হয়ে যান এবং সৈয়দ হারুন ও তার ফাউন্ডেশনের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.