জমি অধিগ্রহণ করে শিল্পপার্ক স্থাপনের প্রস্তাবনার প্রতিবাদে মানববন্ধন

রবিউল ইসলাম রবি, শিবগঞ্জ (বগুড়া) প্রতিনিধি

১০৯

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার মোকামতলা-জয়পুরহাট আঞ্চলিক মহাসড়কের শহরতলী থেকে গণেশপুর পর্যন্ত আধা কিলোমিটার রাস্তাজুড়ে ৩/৪ ফসলি জমি অধিগ্রহণ করে বিসিক উত্তরাঞ্চল কৃষিপণ্য প্রক্রিয়াকরণ শিল্পপার্ক স্থাপনের প্রস্তাবনার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে ভুক্তভোগী এলাকাবাসী।

মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) সকাল ১০টা ৩০ঘটিকা হতে দুপুর ১২ঘটিকা পর্যন্ত জমি রক্ষা আন্দোলন কমিটির ব্যানারে এ কর্মসূচি পালিত হয়।

বাংলাদেশ সরকারের শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধিনে শিবগঞ্জ থানাধীন উথুলি, নারায়নপুর, সন্নাসী, ধোন্দাকোলা, চাঁনপুর, খালিমপুর, ছলেমান ও হরিপুর মৌজার ৫০০ একর জমি অধিগ্রহণ করে বিসিক উত্তরাঞ্চল কৃষিপণ্য প্রক্রিয়াকরণ শিল্পপার্ক স্থাপনের প্রস্তাবনার প্রতিবাদে এলাকার ভূক্তভোগী কৃষকরা এ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করে।

তাদের দাবী প্রকৃত তথ্য সংগ্রহ না করে আমাদের এলাকার ৫০০ একর উর্বর ফসলি কৃষি জমিকে অনুর্বর ও এক ফসলি জমি দেখিয়ে অন্যায়ভাবে জমি অধিগ্রহণের প্রস্তাবনা দেওয়া হয়েছে। প্রকৃত সত্য হচ্ছে আমাদের এলাকার সকল জমি ৩/৪ ফসলি।

মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ বক্তারা বলেন, বাংলাদের সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কণ্যা শেখ হাসিনার আমাদের যৌক্তিকদাবী অবশ্যই পুনঃবিবেচনা করবেন এবং আবাদী ফসলী জমি অধিগ্রহণ করে শিল্পপার্ক স্থাপনের প্রস্তাবনা বাতিল করবেন।

জমি অধিগ্রহণের সিদ্ধান্ত অন্যায়ভাবে বাস্তবায়নের চেষ্টা করা হলে জমি রক্ষার জন্য ভবিষ্যতে কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলার হুশিয়ারিও দেওয়া হয় মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে।

উথুলি, নারায়নপুর, সন্নাসী, ধোন্দাকোলা, চাঁনপুর, খালিমপুর, ছলেমান, হরিরামপুর ও গণেশপুর জমি রক্ষা আন্দোলন কমিটির ব্যানারে পালিত মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ বক্তব্য রাখেন শিবগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান তোফায়েল আহম্মেদ সাবু, মোকামতলা ইউপি চেয়ারম্যান মোকলেছার রহমান খলিফা, আওয়ামিলীগ নেতা মোকলেছার রহমান মুন্নু, যুবলীগ নেতা শহিদুল ইসলাম, ছাত্রলীগ নেতা রাকিব আকন্দ, এলাকাবাসী আবুল কাসেম জুয়েল, মাহবুবুর রহমান, এ্যাডঃ রুহুল আমীন, আজিজুল খলিফা, আ’লীগ নেতা আবেদীন, মেম্বার ফজলার রহমান, ছাইদুর রহমান মাস্টার, সাবেক প্রভাষক শ্রী চন্দ্র চরণ, নিশিকান্ত মাস্টার, জয়নাল মাস্টার, মঞ্জু তালুকদার, ফরমান আকন্দ, আঃ মান্নান, শাহীন খলিফা, আঃ মজিদ মোল্লা, বাছেদ খলিফা, বাচ্চু খলিফা, তন্ময় প্রামাণিকসহ এলাকার ২হাজার থেকে ২হাজার ৫শত নারী পুরুষ।

প্রসঙ্গত গত ৭এপ্রিল এলাকাবাসীর পক্ষে জমি অধিগ্রহণের প্রস্তাবনার প্রতিবাদে শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার আলমগীর কবির বরারব একটি লিখিত আবেদন করা হয়। এর প্রেক্ষিতে শিবগঞ্জ উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা ১১এপ্রিল জেলা প্রশাসক বরাবর ২৬ পাতা সম্বলিত অভিযোগটি প্রেরণ করেন।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.