টঙ্গীতে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে যুবককে কুপিয়ে হত্যা।

গাজীপুর প্রতিনিধিঃ

বশিরআলম, গাজীপুরের টঙ্গীতে পূর্ব বিরোধের জেরে মোবাইল ফোনে কল করে ডেকে নিয়ে আশিক (২০) নামে এক তরুণকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় বাধা দিতে গিয়ে ৫ জন আহত হয়েছে। গত শনিবার দিবাগত রাত ১০টায় টঙ্গী পূর্ব থানাধীন গাজীপুরা (বাঁশপট্টি) এলাকার পেছনে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আশিক টঙ্গীর এরশাদনগর ৩নং ব্লক এলাকা সোলেমান হোসেনের ছেলে। অভিযুক্ত আশরাফুল ইসলাম (২২) গাজীপুরা এলাকার আব্দুল কাদেরের ছেলে।

ঘটনার পর থেকে সে পলাতক। আহতরা হলেন, টঙ্গীর এরশাদ নগর এলাকার নাসিমের ছেলে সাব্বির (১৮), মোস্তফা কামালের ছেলে বিল্লাল হোসেন (২২), টুটুল (২০) এবং তাদের অপর দুই বন্ধু।

গুরুতর আহত সাব্বিরকে টঙ্গীর হোসেন মার্কেট এলাকার স্থানীয় আল কারিম হাসপাতাল এবং বিল্লাল হোসেনকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

নিহতের বড় ভাই সোহাগ মিয়া ও নিহতের স্ত্রীর বরাত দিয়ে জানান, আর্জেন্টিনার খেলা উপলক্ষে কয়েক বন্ধু এক সঙ্গে বসে খাওয়া-দাওয়া ও আনন্দ করবে বলে আশরাফুল ফোন করে আশিককে গাজীপুরা বাঁশ পট্টির পেছনে বিলের পাশে ডেকে নেয়।

বিলের পাড়ে বসে তারা মুরগীর গ্রিল দিয়ে মুড়ি খাচ্ছিল। এ সময় আশরাফুল আশিককে বিলের একটু দূরে ডেকে নিয়ে তাকে এলাপাতাড়ি কোপাতে থাকে।

এসময় ঘটনাস্থলেই আশিকের মৃত্যু হয়। তার চিৎকারে ৫ বন্ধু এগিয়ে আসলে আশরাফুল তাদেরকেও কুপিয়ে মারাত্মক আহত করে। টঙ্গী পূর্ব থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) কাওসার

জানান, অটোচালক আশিককে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচ জনকে আটক করা হয়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য গাজীপুর

শহীদ তাজ উদ্দিন আহাম্মেদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছেন। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.