চন্ডিহারায় নারী হোটেল শ্রমিকের গায়ে গরম তেল দিয়ে হত্যার চেষ্টা! আটক- ১

রবিউল ইসলাম রবি, শিবগঞ্জ (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ

৩৮

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার চন্ডিহারা কোয়ালীপাড়ায় বগুড়া-রংপুর বিশ্বরোড সংলগ্ন মিতু হোটেলে পঁচা ও বাসি খাবার কাস্টমারকে পরিবেশন না করার অনুরোধ করলে হোটেল মালিক ক্ষিপ্ত হয়ে অসহায় ঐ নারী হোটেল শ্রমিকের গায়ে গরম তেল ঢেলে হত্যার চেষ্টা করে। এঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ ১জনকে গ্রেপ্তার করে।

১লা জুলাই সোমবার সকাল ১০টার দিকে ঐ হোটেলে এমন হৃদয় বিদারক ঘটনা ঘটে। আহত নারী হোটেল শ্রমিকের নাম জাহেদা বেগম (ঘটনার সাথে সম্পৃক্ততার অভিযোগে মন্টু মিয়া (৩৫) নামে ঐ হোটেলের বাবুর্চি কে আটক করেছে পুলিশ।

আটককৃত মন্টু মিয়া নন্দীগ্রাম উপজেলার মাটিহাস গ্রামের ছাবেদ আলীর পুত্র। এঘটনায় ২মে মঙ্গলবার দুপুরে ঐ অসহায় নারীর মেয়ে কাজলী বেগম বাদি হয়ে ৩জনের নামে থানায় অভিযোগ দায়ের করে। তাদের মধ্যে হোটেল মালিক ফারুক(৪০) ও অপর কর্মচারি খোকা মিয়া (৩৫) পলাতক রয়েছে।

সূত্র বলছে, মিতু হোটেলের খাবারের মান খুবই খারাপ এবং পরিবেশ স্যাঁতসেতে। হোটেল মালিক ফারুক বেশি মুনাফা লাভের আশায় পঁচা ও বাসি খাবার গ্রাহকদের পরিবেশন করে। থানার অভিযোগ সুত্রে জানা যায় হোটেল মালিক ফারুকের নির্দেশে মন্টু মিয়া ও খোকা মিয়া এমন নেক্কারজনক ঘটনা ঘটায়।

আহত ঐ নারী হোটেল শ্রমিক শজিমেকের বার্ণ ইউনিটে ভর্তি আছে। কাজলী বেগম বলেন, আমার মা পঁচা ও বাসি খাবার কাস্টমারদের কাছে পরিবেশন করতে মানা করলে হোটেল মালিকের যোগসাজশে এমন নেক্কারজনক ঘটনা ঘটেছে।

এ বিষয়ে শিবগঞ্জ থানার রায়নগর ইউপি’র দায়িত্বপ্রাপ্ত এস আই বিরঙ্গ বলেন, থানায় অভিযোগ হয়েছে। ১ জনকে আটক করা হয়েছে। অন্যদেরকেও আটকের চেষ্টা অব্যহত আছে।

 

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.