মুক্তিপনের দাবীতে ব্যবসায়ীকে অপহরণ সন্ত্রাসী মামুন বাহিনীর ৫ সদস্য  গ্রেফতার,মূল হোতা অধরা

মো: বশির আলম, টঙ্গী (গাজীপুর) প্রতিনিধি :

৯১

গাজীপুরের টঙ্গীতে মুক্তিপনের দাবীতে অপহৃত ব্যবসায়ীকে হাত পা বাধা অক্ষ্যত অবস্থায় উদ্ধার করেছে টঙ্গী পশ্চিম থানা পুলিশ। অপহৃত ব্যবসায়ী খোকন মোল্লা টঙ্গীর খরতৈল এলাকায় দীর্ঘদিন যাবত বসবাস করে আসছেন।

এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী, চাঁদাবাজ, মামুন বাহিনীর সদস্যরা ইতিপূর্বে টঙ্গীর গাজীপুরা সাতাইশ এলাকায় বিভিন্ন লোকজনকে অপহরণ করে চাঁদা দাবী, মাদক ব্যবসাসহ বিভিন্ন অপকর্ম করে আসছে।

মামুনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপকর্মের দায় থানায় একাধিক অভিযোগ রয়েছে। ব্যবসায়ী খোকনকে গত সোমবার রাতে মামুন বাহিনীর সদস্যরা জোরপূর্বক টঙ্গীর খরতৈল বালুর মাঠ এলাকা থেকে তুলে নিয়ে মামুনের বাড়ির পিছনে আটক রেখে শারীরিক নির্যাতন করে এক লক্ষ টাকা মুক্তিপন দাবী করে।

দাবীকৃত টাকা খোকনের পরিবার বিকাশের মাধ্যমে ২৫ হাজার টাকা পরিশোধ করে। এরপরেও আরো টাকা দাবী করে আসছে এই মর্মে থানায় খোকনের পরিবারের পক্ষ থেকে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অপহৃত ব্যবসায়ীকে উদ্ধারে টঙ্গী পশ্চিম থানার অফিসার ইনচার্জ শাহ আলমের নির্দেশে এসআই জাহাঙ্গীর, এসআই সাব্বির, এস আই কাশেম সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে টঙ্গীর বিভিন্ন এলাকায় সারাশি অভিযান চালিয়ে অপহরণকারী মামুন বাহিনীর ৫ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মূল হোতা মামুন পালিয়ে যায়। গ্রেফতারকৃতরা হলেন-শেরপুর জেলা নকলা থানার কুতুবউদ্দিনের ছেলে মো: মঞ্জু মিয়া (২৭) রংপুর জেলার পিরগঞ্জ থানার কামরুলের ছেলে মো: আল আমিন (২৫), নাটোর জেলার নলডাঙ্গা থানার মো: ইউসুফের ছেলে মো: স্বপন (২২), আবু তালেবের ছেলে মো: ফয়সাল (৩১), আলী হোসেনের ছেলে মো: ওয়াসিম (৩৪)। তারা গাজীপুরের বিভিন্ন বাসায় ভাড়া থেকে অপহরণসহ চুরি, মাদক, ছিনতাই নানান অপরাধমূলক কাজ করে যাচ্ছেন।

অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে টঙ্গী পশ্চিম থানায় নিয়মিত আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে টঙ্গী পশ্চিম থানা অফিসার ইনর্চজা শাহ আলম জানান, মামুনের বিরুদ্ধে ইতিপূর্বে বিভিন্ন অপরাধমূলক তথ্য পুলিশের হাতে রয়েছে। সেই বাহিনীর ৫সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মূল হোতা গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.