সোনাইমুড়ীতে ইউপি নির্বাচনের ৩দিন পর মাছের প্রজেক্টে থেকে মেম্বার প্রার্থীর লাশ উদ্ধার করলো পুলিশ

নোয়াখালী প্রতিনিধি

৭৭

মোঃ জাহাঙ্গীর আলম নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার বজরা ইউপি নির্বাচনের ৩দিন পর একটি মাছের প্রজেক্ট থেকে মোঃ জহিরুল ইসলাম (৫৩) নামের এক ইউপি সদস্য প্রার্থীর লাশ

উদ্ধার করেছে সোনাইমুড়ী থানা পুলিশ। রোববার (৯ জানুয়ারি) সকাল ৯টার টার দিকে উপজেলার বজরা ইউনিয়নের ৩নম্বর ওয়ার্ডের ছনগাঁও গ্রামের রাস্তা সংলগ্ন একটি মাছের প্রজেক্ট থেকে তার

লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত জহিরুল ইসলাম উপজেলার বজরা ইউনিয়নের ৩নম্বর ওয়ার্ডের মৃত হায়াত আহমদের ছেলে এবং একই ওয়ার্ড থেকে প ম ধাপে অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া ইউপি নির্বাচনে

সদস্য (মেম্বার) পদে প্রতিদ্বদ্বীতা করে সে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে। নিহতের ছোট ভাই জাকির জানান, শনিবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে কে বা কাহারা আমার ভাইকে মুঠোফোনে কল করে

ডেকে নিয়ে য়ায়। এরপর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। এরপর রোববার সকাল ৬টার দিকে রাস্তার পাশে একটি মাছের প্রজেক্টের জমিতে ওনার লাশ ভাসতে দেখে স্থানীয় এলাকাবাসী তাদেরকে খবর

দেয়। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিহত জহির স্থানীয় বজরা বাজারের একজন ব্যবসায়ী ছিল। পারিবারিক জীবনে সে ৩সন্তানের জনক ছিল। গত ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি)

নির্বাচনে সে ইউপি সদস্য (মেম্বার) প্রদপ্রার্থী ছিলেন। ওই নির্বাচনে ৩জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে। সে তালা প্রতীকে ওই নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করে সে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে।

সোনাইমুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হারুন অর রশীদ জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে সুরতহাল সম্পন্ন করে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল

হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় থানায় প্রাথািখ ভাবে একটি ইউডি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে এ বিষয়ে পরবর্তী আইনী ব্যবস্থা ণেওয়া হবে।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.