পাওনা টাকা ফেরত চাওয়ায় গরম তেলে ঝলসে গেল যুবক

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ

৩৬

কুড়িগ্রামের চিলমারীতে পাওনা টাকা ফেরত চাওয়াকে কেন্দ্র করে গতকাল বাকবিতাদন্ড অতঃপর আজ বৃহস্পতিবার সেই জের ধরে চায়ের দোকানের গরম তেলে ঝলসে গেলেন সাদ্দাম (৩১)

নামের এক যুবকের শরীর। ঘটনাটি ঘটেছে, উপজেলার রমনা মডেল ইউনিয়নের জোড়গাছ পুরাতন বাজারে।

পারিবারিক ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, জোড়গাছ পুরাতন বাজারে সাদ্দাম হোসেন চায়ের দোকানে কাজ করেন। গতকাল পাশের চায়ের দোকানের কর্মচারী সেলিমের (১৮) কাছ থেকে

পাওনা ২’শ টাকা ফেরত চাইলে দেয়া না দেয়া নিয়ে কথা কাটাকাটি হয় দোকানের মালিক ও কর্মচারীর সাথে সাদ্দামের। এরই জের ধরে ঘটনার দিন সকাল ১১ টার দিকে সাদ্দামের বড় ভাই

জীবন (৩৩) কে হঠাৎ আক্রমণ করে ঐ চায়ের দোকানে মালিক রন্জু মিয়া ও তার ছেলে আকাশ । এরপর খবর পেয়ে ঘটনাস্থানে সাদ্দাম হোসেন এলে কিছু বুঝে উঠার আগেই আকাশ দোকানের বড় জোগ এ করে গরম তেল ছুড়ে মারেন।

এতে গরম তেলে ঝলসে গেলে স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।
আহত সাদ্দাম জোড়গাছ পুরাতন বাজারের মৃত আউয়ালের পুত্র।

সাদ্দামের বড় ভাই জীবন বলেন, গতকাল রাতে বাজারেও কথা কাটাকাটি হয়েছে। আজ সকালে আমি চা খেতে বাজারে আসি কিন্তু হঠাৎ করে সেলিম, রন্জু, আকাশ আমাকে মারধর করে।

তখনি আমি আমার ভাইকে ফোন করে জানাই। ছোট ভাই আসার সাথে সাথে তার গায়ে গরম তেল ছুড়ে মারে। আহত সাদ্দাম বলেন, আমি ২শ টাকা পাই সেলিমের কাছে, সেই টাকাই তো চেয়েছি। কিন্তু তারা সবাই মিলে আমার গায়ে গরম তেল ঢেলে দিয়েছে।

এ বিষয়ে চিলমারী মডেল থানার অফিসার ইনর্চাজ আতিকুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.