টঙ্গীতে মাদক কারবারির বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিককে প্রাণনাশের হুমকি

টঙ্গী গাজীপুর

৪১

বশির আলম টঙ্গীর মাদক কারবারি পারুল আক্তার ওরফে পারুলী’র বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করায় দৈনিক সকালের সময় পত্রিকার সাংবাদিক শেখ মো. রাজীব হাসান কে প্রাণনাশের হুমকি প্রদান করেছে পারুলী আক্তারের স্বামী মানিক ও তার সহযোগীরা। গত মঙ্গলবার (২৮ জুন) দুপুরে টঙ্গীর এরশাদ নগর বড়বাজার এলাকায় সাংবাদিক শেখ

মো. রাজিব হাসান কে প্রকাশ্যে সকলের সামনে মারধর ও হত্যার হুমকি প্রদান করা হয়। এঘটনায় নিজের ও তার পরিবারের নিরাপত্তার জন্য টঙ্গী পূর্ব থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন ভুক্তভোগী সাংবাদিক রাজীব হাসান। সাধারণ ডায়েরী নং-১৭৮৩। সাধারণ ডায়েরি সূত্রে জানা যায়, গত ২৭ জুন ২০২২ ইং তারিখে জাতীয় দৈনিক সকালের সময়

পত্রিকায় “টঙ্গীতে মাদক সম্রাজ্ঞী পারুলী ও তার স্বর্গরাজ্য” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ হয়। এ সংবাদ প্রকাশ হওয়ায় মাদক সম্রাজ্ঞী পারুলীর নির্দেশে তার স্বামী মানিকসহ একদল সন্ত্রাসী ক্ষিপ্ত হয়ে মঙ্গলবার বেলা ১টার সময় এরশাদনগর যাকাত বোর্ড শিশু হাসপাতালের বীপরিত পাশের তানিয়া টেলিকম এ প্রবেশ করে শেখ মো. রাজীব হাসান

কে পত্রিকার নিউজ করায় তার হাত পা ভেঙ্গে দেওয়ারসহ প্রকাশ্যে হত্যার হুমকি দেয়। স্থানীয় এলাকাবাসী জানায়, এরা দীর্ঘদিন যাবত এরশাদনগরসহ আশপাশের এলাকার মাদক কারবারির কাছে মাদক দ্রব্য সরবরাহ করে আসছে।। এবিষয়ে স্থানীয় থানা পুলিশ কে অবহিত করার পরেও কিছু অসাধু কর্মকর্তারা তার বাসায় নিয়মিত আসা যাওয়া করে

থাকেন। এছাড়া এলাকার নামধারী কথিত সাংবাদিক পরিচয় দানকারী কয়েকজন নিয়মিত আসে পারুলি’র বাসায় আসা যাওয়া করতে দেখা যাচ্ছে। ঘটনার দিন কথিত এক সাংবাদিক পরিচয়দানকারী মাদক কারবারি পারুলকে উসকিয়ে দেওয়ার পর তার স্বামী মানিক এসে সাংবাদিক শেখ রাজীব হাসান কে সংবাদ প্রকাশের জের ধরে কথা বলে

প্রাণনাশের হুমকি দেয়। এমন কিছু কথিত সাংবাদিক ও কিছু অসাধু পুলিশ কর্মকর্তার উসকানি পেয়ে মাদক কারবারিরা অপরাধ করার সুযোগ পায়। একারণেই এরা সাংবাদিককে প্রকাশ্যে মেরে ফেলার হুমকি দেওয়া ও সাধারণ

মানুষদের ধরে এনে মারধর করার সাহস পায়। আমরা এমন ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই এবং প্রশাসন যেন দ্রুত মাদক কারবারিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহন করে সেই দাবি জানাচ্ছি। এবিষয়ে টঙ্গী পূর্ব থানার অফিসার ইনচার্জ

(ওসি) জাবেদ মাসুদ জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.