ভারতের করোনা ভাইরাসের পরিস্থিতির পেছনে নতুন ভ্যারিয়েন্ট

ডেস্ক নিউজঃ0

৮৭

ভারতের বর্তমান ভয়াবহ কোভিড পরিস্থিতির জন্য করোনাভাইরাসের নতুন একটি ভ্যারিয়েন্ট দায়ি বলে জানিয়েছে দেশটি। গত মার্চ মাসে প্রথম এই ভ্যারিয়েন্টটি শনাক্ত হয়।

এখন দেশটি জানিয়েছে, তাদের ধারণা- দেশে করোনার যে দ্বিতীয় ঢেউ আঘাত হেনেছে তার পেছনে রয়েছে এই ভ্যারিয়েন্ট।

ডবল মিউট্যান্ট এই ভ্যারিয়েন্টের নাম দেয়া হয়েছে বি.১.৬১৭। দেশটির একাধিক রাজ্যে এই ভ্যারিয়েন্টের উচ্চ সংক্রমণ শনাক্ত করা হয়েছে। এ খবর দিয়েছে বিবিসি।

খবরে বলা হয়েছে, ভারতের ন্যাশনাল সেন্টার্স ফর ডিজিজ কন্ট্রোল এই ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। যদিও এর গবেষকরা এখনো দ্বিতীয় ঢেউ ও নতুন ভ্যারিয়েন্টের মধ্যেকার স¤পর্কের বিষয়ে পুরোপুরি নিশ্চিত নন।

ভারতে কোভিড পরিস্থিতি দিন দিন খারাপ হচ্ছে। গত এক মাস ধরে দেশটিতে মহামারি বিপর্যয়কর অবস্থা ধারণ করেছে। গত ২৪ ঘন্টায় রেকর্ড ৪ লাখ ১২ হাজার মানুষের কোভিড শনাক্ত হয়েছে ভারতে। একইসময়ে কোভিডে মৃত্যু হয়েছে প্রায় ৪ হাজার মানুষের।

ভারত সরকারের শীর্ষ স্বাস্থ্য উপদেষ্টা কে বিজয় রাঘাবন স্বীকার করে নিয়েছেন যে, দেশটির গবেষকরা করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের তীব্রতা বুঝতে ব্যর্থ হয়েছেন। তৃতীয় ঢেউ আসছে বলেও সাবধান করেন তিনি।

যদিও এটি কখন আঘাত হানতে পারে তা নিশ্চিত করে জানাননি বিজয় রাঘাবন। তবে তিনি এর জন্য এখনই প্রস্তুতি গ্রহণের পরামর্শ দিয়েছেন।

নতুন ভ্যারিয়েন্টের বিষয়ে নিশ্চিত হতে বিস্তর গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন ভারতীয় গবেষকরা। বিভিন্ন রাজ্য থেকে আনা ১৩ হাজার নমুনা বিশ্লেষণ করে জানা গেছে এর মধ্যে ৩ হাজার ৫০০টিই নতুন ভ্যারিয়েন্টের

দেশটির ৮ রাজ্যে এর উপস্থিতি নিশ্চিত। এগুলো হচ্ছে, মহারাষ্ট্র, কর্নাটক, পশ্চিমবঙ্গ, গুজরাট ও ছত্রিশগড়। এর আগে ভারত দাবি করে আসছিল যে, ভারতীয় এই ভ্যারিয়েন্টের কোনো স¤পর্ক নেই করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের সঙ্গে।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.