সুনামগঞ্জে আদিবাসী নারীকে ধর্ষন: শাস্থির দাবীতে মানববন্ধন

সুনামগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি:

৭০

মোজাম্মেল আলম ভূঁইয়া-সুনামগঞ্জের সীমান্ত এলাকায় বসবাসকারী এক আদিবাসী হাজং নারী ধর্ষনের শিকার হয়েছেন। ধর্ষকারীর নাম- আব্দুর রাশিদ (৩৮)। সে জেলার তাহিরপুর উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের রাজাই গ্রামের বাসিন্দা। বর্তমানে সে জেল হাজতে রয়েছে।

তারই শাস্থির দাবীতে আজ শনিবার (২৫ সেপ্টেম্ভর) দুপুরে সুনামগঞ্জ পৌরশহরের আলফাত স্কয়ার পয়েন্টে মানববন্ধন করেছে জেলা আদিবাসী সংগঠনের সদস্যরা।

প্রায় ঘন্টাব্যাপী অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন- কমরেড চিত্তরঞ্জন তালুকদার, মহিলা পরিষদের সভানেত্রী গৌরী ভট্টাচার্য্য, আদিবাসী ফোরামের অর্থ সম্পাদক এন্ডু সলোমার, টনি চিরান, চ না চাকমা, হাজং সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক পল্টন হাজং, জিতেন্দ্র হাজং, আশীষ হাজং প্রমুখ।

মানববন্ধনের বক্তরা বলেন- গত ১৪ আগস্ট জেলার তাহিরপুর উপজেলা সীমান্তের রাজাই গ্রামের পাহাড়ী ছড়ায় বৃষ্টির মাঝে আদিবাসী গৃহবধু গোসল করতে গেলে লম্পট আব্দুল রাশিদ তাকে জোরপূর্বক ধর্ষন করে।

এঘটনার পর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ঘটনার দিন ভিকটিমকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য না পাঠিয়ে পরদিন সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালে পাঠায়। একারণে স্বাস্থ্য প্রতিবেদনে ধর্ষনের আলামতের রির্পোটে নেগেটিভ আসে।

ধর্ষনকারীকে বাঁচানোর জন্য প্রতিবেদন পাল্টে দেওয়া হয়েছে বলে আশংকা প্রকাশ করে এব্যাপারে দ্রুত শাস্থির দাবী করেন আদিবাসী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

 

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.