২৪ ঘণ্টায় ১১১ জন আক্রান্ত, কুষ্টিয়ায় ৭ জনের মৃত্যু

কুষ্টিয়া নিজেস্ব পতিনিধি:

৫৬

খুলনা. সীমান্তবর্তী জেলা কুষ্টিয়ায় সাত দিনের কঠোর লকডাউনের পঞ্চম দিন চলছে আজ শুক্রবার। পিসিআর ল্যাব ও জেলা সিভিল সার্জনের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ২৬৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নতুন করে ১১১ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৪২ শতাংশ।

শেষ ২৪ ঘণ্টায় জেলায় আরও সাত জনের মৃত্যু হয়েছে। কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালে করোনা রোগীর অতিরিক্ত চাপে সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন চিকিৎসকেরা।

হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. তাপস কুমার সরকার জানান, কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের করোনা রোগীর জন্য ১০০ শয্যার বিপরীতে ১৭২ জন রোগী ভর্তি রয়েছে।

করোনা রোগীদের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে ১০০ শয্যা থেকে ২০০ শয্যায় উন্নীত করা হচ্ছে। আপাতত জরুরি সেবা ছাড়া হাসপাতালের বর্হিবিভাগের চিকিৎসাসেবা বন্ধ রাখা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এদিকে, লকডাউন কার্যকর করার জন্য জেলা শহরের বিভিন্ন স্থানে চেকপোস্ট বসিয়েছে পুলিশ। এ ছাড়া ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান পরিচালনা করছেন।

এর মধ্যেও কোনোভাবেই কমানো যাচ্ছে না করোনায় সংক্রমণের ঊর্ধ্বমুখী হার ও মৃত্যু। গতকাল জেলাজুড়ে অভিযান চালিয়ে স্বাস্থ্যবিধি ভাঙার কারণে ভ্রাম্যমাণ আদালত এক লাখ ৩৬ হাজার ৭৫০ টাকা জরিমানা আদায় করেছেন।

অস্বাভাবিক হারে করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় কুষ্টিয়ায় গত ২০ জুন মধ্যরাত থেকে ২৭ জুন মধ্যরাত পর্যন্ত সাত দিনের কঠোর লকডাউন ঘোষণা করে গণবিজ্ঞপ্তি দেয় জেলা প্রশাসন।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.