শেরপুরের ঝিনাইগাতি হাসপাতালে মারামারিতে আওয়ামীলীগ নেতা ও স্বাস্থ্যকর্মী আহত।

মোহাম্মদ দুদু মল্লিক শেরপুর প্রতিনিধি।

৩৫

শেরপুর প্রতিনিধি।আজ ২৯ জুলাই দুপুরে শেরপুর ঝিনাইগাতি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে করোনার টীকা দেওয়ার স্থানে মারামরি করে উপজেলার মালিঝিকান্দা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আতিউর রহমান আতিক ও স্বাস্থ্য কর্মী মোস্তাফিজুর রহমান সোহেল আহত হয়েছেন।

সোহল স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধা দেলোয়ার হোসেনের পুত্র।আতিক মরহুম ইজ্জত আলীর পুত্র।মোস্তাফিজুর রহমান সোহেল ঝিনাইগাতি উপজেলার কমিউনিটি ক্লিনিকের

স্বাস্থ্য প্রভাইডার(সিআইচসিপি)।দুজনের এই মারামারিতে টীকা কার্যক্রম কিছুক্ষন বন্ধ থাকে। স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে ঘটনার সময় করোনার টীকা দিতে আসা ওই নেতা ও সোহেলের মধ্যে সিরিয়াল ধরা না ধরা নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়।এক পর্যায়ে দুজনেই মারমারিতে লিপ্ত হন এবং আতিক রক্তাক্ত হয়।

আতিকের দাবী সোহেল কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে উত্তেজিত হয়ে তাকে(আতিক)আহত করেছে।সোহেলের দাবী আতিককে চেয়ারে বসতে বলা হয়েছে এবং সিরিয়াল মেনে টীকা নিতে বলায় উত্তেজিত হয়ে আমার উপর আক্রমণ করেছে।

হাসপাতালের আবাসিক স্বাস্থ্য কর্মকর্তা শেখ মোঃ মনিরুজ্জামান বলেছেন বিষয়টি শুনে ঘটনাস্থলে গিয়ে উপস্থিত সেবা নিতে আসা মানুষের কাছ থেকে বিস্তারিত শুনেছি।

দুজনেই আহত হয়েছেন।আহত দুজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দিয়েছেন।ডাঃ জসিমউদদীন উপজেলা স্বাস্থ্য পঃপঃ কর্মকর্তা বলেন আসলে কি ঘটনা হয়েছে তা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.